৩১ ডিসেম্বর, ২০১৪

ব্যর্থ আল্লা সফল শয়তান

লিখেছেন তানজিমা আহসান তুলি

আল্লার কোনোকিছু করতে ইচ্ছা করলে তিনি বলেন "হও", অতঃপর তা হয়ে যায় - এ কথা সত্যি হলে আল্লার নিজের ধর্ম প্রচার করতে এতো পেরেশানি কেন? কোটি কোটি ফেরেশতা, লক্ষ লক্ষ নবী, রাসুল, আলেম ওলামা, পীর-ফকির, মুহাদ্দিস, মুফাসসির... সেই সাথে শতাধিক আসমানি কিতাব নাযিল করেও আল্লা তার বান্দাগুলারে সামলাইতে পারতেছে না...! 

আকাইম্মার ঢালি এইসব ফেরেশতা আর নবী-রসুল দিয়া আল্লা তার অতি পেয়ারের বান্দাদের কী শিক্ষা দিল? এর চাইতে যদি আল্লায় বলতো, "হে আমার বান্দারা, তোরা সহীহ মুমিন হইয়া যা, তোদের আমি হেদায়েত দিয়া দিলাম!" তাইলেই তো কাজ হইতো। হুদাই ফেরেশতা, নবী-রসুল আর আসমানি কিতাবের ঝামেলা পোহাইতে হইতো না। 

এইসব পন্ডিতি করতে গিয়া আল্লা তার বান্দাদের অনর্থক কতগুলা ফেরকার মধ্যে ফালাইছে। আল্লার নিজের ধর্মের মধ্যেই শিয়া, সুন্নি, শাফেয়ী, মালেকি, আহমদি, হাম্বলী আরো কত্তো কী! হেরা একটায় আরেকটার ছায়া পর্যন্ত মাড়ায় না, বিধর্মীদের চাইতেও ঘৃণার দৃষ্টিতে দেখে একে অন্যরে। 

এছাড়া, দুনিয়ায় আল্লার বিরোধী ধর্মেরও তো অভাব নাই! তবে কি আল্লা তার ধর্ম প্রচারে ব্যর্থ? নিজের কর্তৃত্ব নিজে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না, ফেরেশতা দিয়া পারে না, নবী-রসুল দিয়া পারে না, আসমানি কিতাব দিয়া পারে না, তাইলে আল্লায় আবার সর্বশক্তিমান হইলো কেমনে? নবী-রসুলের জমানা শেষ হইয়া গেছে, মাগার ফেরেশতাগুলা তো ২৪/৭ রোবটের মত অ্যাকটিভ, আল্লায় তো ফেরেশতারে কইতে পারে, "হে মিকাইল, যা আমার বিরুদ্ধে যারা কথা কয়, তাগো উপ্রে ঠাডা বর্ষণ কইরা আয়।"

কয় না ক্যান? এখন দেখি আল্লার ধর্মের নামে মারেও মুসলমান, মরেও মুসলমান! আল্লায় মনোযোগ কি হুরাহুরিতে ব্যস্ত নাকি?

অন্যদিকে আযাজিল ফেরেশতা আল্লার হুকুম না শুইনা ইবলিশ নামের শয়তানে পরিণত হইয়া একাই ১০০! আল্লার মত ফেরেশতা, নবী-রসুল বা কিতাব নামের হেল্পার ছাড়াই তামাম দুনিয়া ভাইজ্যা খাইতাছে! যত্তো সফলতা সব দেখি নিঃসঙ্গ শয়তানের। আল্লায় কাজ-কাম ফালাইয়া করে কি? আল্লা তার সৃষ্টিজগৎ দেখাশোনা বাদ দিয়া করে কী? শয়তান এতো সফল কেন? আল্লা কি তবে ব্যর্থ? এইরকম ব্যর্থ আল্লার ইবাদত কইরা সফল হবার সম্ভাবনা কতটুকু?

আমি ব্যর্থ আল্লার পক্ষে নাই, সফল শয়তানের দলে। জয়তু শয়তান!

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন