২৮ জানুয়ারী, ২০১৫

ফাতেমা দেবীর ফতোয়া - ০৫

লিখেছেন ফাতেমা দেবী (সঃ)

২১.
দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত হজ্জ করি। তবুও লোকে আমায় কাফের বলে। পৃথিবীর অনেক অনেক বোকা লোক লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে মক্কায় গিয়ে কাবাঘরের চারপাশে ঘুরে ঘুরে য়াল্ল্যাকে বলে, ওই য়াল্ল্যা, আমি আইসি। য়াল্ল্যা তাদের অত্যাচারে বিরক্ত হয়ে ঝিম মেরে পড়ে থাকে কাবার মেঝেতে। কোনো আওয়াজ করে না। 

আরে, য়াল্ল্যাকে 'আইসি গো আমি আইসি' বলার জন্য কি এত টাকা অপচয় করে এত দূরে যাওয়া লাগে? য়াল্ল্যা সর্বব্যাপী। তিনি ত ঘরের ভেতরে টয়লেটেও রয়েছেন। এবং তিনি কোরানে বলেই দিয়েছেন, অপচয়কারী শয়তানের ভাই। হাগিদের চিল্লাচিল্লি শুনে ও তাদের অপচয় করে শয়তানের ভাই বনে যাওয়ার কাণ্ড-কারখানা দেখে য়াল্ল্যা মূক হয়ে মুখ থুবড়ে পড়ে থাকেন। 

অথচ আমি প্রতিদিন পাঁচ ওয়াক্ত টয়লেটে হগে গিয়ে যখন বলি, য়াল্ল্যা, আমি আইসি; য়াল্ল্যা বলেন, তাইলে আর দেরী কিয়ের? আমার উপ্রে বর্ষণ করো।

২২.
য়াল্ল্যা তালা অইলে চাবি কিডা?

২৩.
চুল দেখানো শান্তির ধর্ম ইছলামে জায়েজ নাই। কারণ চুলেই অশান্তি। তাই মুমিনারা তাদের মাথার চুল ত্যানায় পেঁচিয়ে ঢেকে রাখে, মুমিনরা টুপি দিয়ে তাদের মাথার চুল ঢেকে রাখে। কিন্তু মমিনরা তাদের মুখের চুল, মানে দাড়ি কেন ঢেকে রাখে না? তারা কি তাদের মুখের চুল, মানে দাড়িতে অশান্তি অথবা শয়তান পোষে? এজন্যই কি দাড়ি ঢাকে না?

২৪.
মহাবদের শস্যক্ষেত্রগুলি কি বেহেস্তে যাবে? সেখানে তাদের কামটা কী? মহাবদ ত বেহেস্তে হুরী চাষ করবে।

২৫.
দূর্গার বাহন ছিল সিংহ, কার্তিকের বাহন ছিল ময়ূর, বিষ্ণুর বাহন ছিল গরুড়, শিবের বাহন ছিল নন্দী, লক্ষ্মীর বাহন ছিল প্যাঁচা, সরস্বতীর বাহন ছিল হাঁস, গঙ্গার বাহন ছিল মকর, যমুনার বাহন ছিল কূর্ম, মহাবদ নবীজির বাহন ছিল বোরাক। এরা সবাই কেবল দেব-দেবতা ও প্রেরিত পুরুষই ছিল না, অত্যন্ত পরিবেশ সচেতনও ছিল। পরিবেশের যাতে কোনো ক্ষতি না হয়, সেজন্য এরা পরিবেশ-বান্ধব বাহন ব্যবহার করতো। আজকালকার দিনে মানুষ গাড়ি-প্লেন-ট্রেন-রকেট ইত্যাদি ক্ষতিকারক বাহন ব্যবহার করছে, যা পরিবেশের জন্য হুমকি-স্বরূপ। অন্তত এ সকল দেব-দেবতা, অবতার ও প্রেরিত পুরুষদের অনুসারীদের উচিত গাড়ি-ট্রেন-প্লেন-রকেট ইত্যাদি মারাত্মক বাহনে না চড়ে পশু-পাখি জাতীয় বাহনে চড়ে যাতায়ত করা, যাতে করে পৃথিবী ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা পায়।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন