৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

ফাতেমা দেবীর ফতোয়া - ০৬

লিখেছেন ফাতেমা দেবী (সঃ)

২৬.
দাসীরা মমিনদের জন্য হালাল। নবীজির বিবিগণ ও কন্যাগণকে দাসী হিসেবে মমিন বান্দাদের নিকট সঁপে দিলাম। বিছমিল্লাহ করে হালাল পণ্য সম্ভোগ শুরু করুন, মমিন ভাইলোক। ইহা আল্ল্যাপাকের নিকট হতে আপনাদের জন্য নেয়ামত।

২৭.
সেই দেড় হাজার বছর আগেই নবীজি বোরাকে চড়ে মহাকাশ ভ্রমণ করে এসেছেন। এখনকার বিজ্ঞানীরা সেই আইডিয়া কাজে লাগিয়েই তো মহাকাশে যাচ্ছে। নবীজি যদি বোরাকের পিঠে চড়ে মহাকাশে না যেতেন, এবং সেই বোরাক-ভ্রমণকাহিনী যদি কোরানে না লিখতেন, তাহলে আজকের নাফরমান বিজ্ঞানীরা কি কোনোদিন মহাকাশে যাবার কথা চিন্তা করতে পারতো? আজ নাফরমান বিজ্ঞানীরা মহাকাশে আরামসে ঘুরে বেড়ায় নবীজির বোরাকাঙ্ক অনুসরণ করে। এজন্য একটু কৃতজ্ঞতা পর্যন্ত স্বীকার করে না তাঁর কাছে। হায় রে নাফমানের দল।

২৮.
নবী হওয়ার আগে মহাবদ তেমন একটা বদ ছিল না। খুব সাধারণ লোক ছিল। হত্যা ধর্ষণ লুণ্ঠন অরাজকতা এসব কাজ কখনো করেনি। নবী হবার পরেই করেছে সব বদকর্ম বিরামহীন। সব সে করেছে য়াল্যার নির্দেশে। তার কৃত বদকর্মের জন্য দায়ী তো সে নয়। য়াল্যা তাকে দিয়ে ওসব করিয়ে নিয়েছে। সে ছিল ভিকটিম।

২৯.
পাক-পবিত্রতা ঈমানের অঙ্গ। তাই আমি প্রতিদিনই জমজমের পবিত্র জল ও গঙ্গার পাক পানি দিয়ে টয়লেট ধুই।

৩০.
আস্তেক ভাই ও বোনলোকেরা আমাকে একটু সাহায্য করুন। বলুন, কোন ধর্মের বেহেস্তে খাওয়াদাওয়া বেশি ভালো পাওয়া যাবে? মুছলিম বেহেস্ত, হিন্দু বেহেস্ত, ইহুদি বেহেস্ত, জৈন বেহেস্ত, শিখ বেহেস্ত, নাকি ব্রাহ্ম বেহেস্ত, নাকি খ্রিষ্টান বেহেস্ত নাকি অন্য কোনো ধর্মের বেহেস্ত? যে বেহেস্তে খাওয়াদাওয়া সবচেয়ে ভালো পাওয়া যাবে, আমি সেই ধর্মে আস্তেক হইয়া যাবো।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন