৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৫

তোমরা যারা 'ধর্ম নয়, মানুষ খারাপ' বলো, তাদের ফতি

লিখেছেন বাংলার উসমান মুয়াজ্জিন মোহাম্মদ ইসলাম

যে আইসিস, তালিবান, জে এম বি সদস্য চরম ফন্থীকে তুমরা ক্রিমিনাল ভাবতেসো, যুদি তাহার ভিতরটা দেখতা, বুইজতে ফাইত্তা যে, এদের ভিতর 'ভাল কিসু করব' - এই চেতনাটা কেমন জীবন্ত হই আছে তাদের জেবনে! সে সেতনায় তারা কেমুন উজ্জিবিত!

সহী আক্বিদার এসব লোকেরা আত্মত্যাগ, সাধনা, কঠোর অনুশিলন সহ সকল মানবিয় গুনাবলি চর্চা কোইত্তে কোইত্তে নিজেরা আপন 'বিবেক'-এর কাসে এত শুদ্ধ সৎ থাইকতে সায় যে, এক একটা সহী আক্বিদার লোক যেন এক একটা রস বিহীন গেন্ডারির স্টিক এ ফরিনত হয়। 

যে ১০ বছরের বালিকাটি নাইজেরিয়াতে আত্মঘাতি হামলা সালাইল এবং নিজেকে উড়াইল, সে অ কিন্তুক বিশ্বাস করত, সে ভাল কিসু কোইত্তেসিলো।

কিন্তুক, প্রশ্ন হইল - ভাল কিসু করার এসব চেতনাধারীরা, যে 'বিবেক' দ্বারা নিজেদিগকে পরিসালিত কারসে, এবং হত্যাযজ্ঞ সালাইতেসে, সেই 'বিবেক' খানা কি দ্বারা গঠিত! 

ভৌগলিক কারনেই সে তার হাতের কাসে যে ধর্ম ফায়,সেটা দ্বারা তার 'চেতনা' কাজে লাগায়। তার বিবেকের চাইরপাশে ফ্রেইম ফিট করে।

যেসব কানুন দ্বারা সে প্রভাবিত, সেসব কানুন, ধর্ম, মতবাদ যুদি তারে অসহিষ্ণু করে, অথবা ভাল কিসু করতেসে - এই উদ্দেশ্যে খুন করায়, সে কী খরবে রে বাজি?

তার ভিতর ত ভাল কিসু করার চেতনা বিরাজ কোইত্তেসেই। সে জালিম হইব ক্যা! 

ধর্ম নামক ড্রাইভার যুদি তারে ভুলাইয়া ভালাইয়া লাইনচ্যুত কতে, তোমায় স্বীকার কোইত্তেই হবে, মানুষ নয়, ধর্মের ভিতরই ক্যান্সার লুকাই আছে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন