২৯ নভেম্বর, ২০১৫

বিন্দু বিন্দু হিন্দু আসুরিকতা - ০২

১. কর্নাটকের এক বিজেপি নেতা গোমাংস খাওয়ার ‘অপরাধে’ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়ার মুণ্ডচ্ছেদ করার হুমকি দিলেন প্রকাশ্যে।

২. হিন্দুধর্মও নারীকে দিয়েছে সর্বোচ্চ সম্মান। রজঃস্বলা নারী মন্দিরে ঢুকে মন্দিরকে অপবিত্র যাতে না করতে পারে, তাই ঋতুস্রাব-সনাক্তকারী স্ক্যানার আবিস্কৃত হলেই মন্দির-কর্তৃপক্ষ সেটি স্থাপন করবে।

৩. স্টেম সেল থেরাপির সূত্রপাত হয়েছে ১০০ কৌরবের জন্মের সময় এবং মোটরগাড়ি ছিলো বৈদিক যুগেও - গুজরাটে স্কুলের পাঠ্যপুস্তকে এমন তথ্য দেয়া আছে।

৪. হিন্দু জঙ্গি দল 'হনুমান সেনা' (নাম বটে!) হুমকি দিয়েছে এক নাট্যকারকে।

৫. আরেক হিন্দু জঙ্গি দল শিব সেনা ঘোষণা দিয়েছে, ভারতে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা ক্রমবর্ধমান বলে মন্তব্য করা চিত্রাভিনেতা আমির খানকে কেউ চড় মারতে পারলে তাকে এক লক্ষ রুপি পুরস্কার দেয়া হবে।

৬. শিব সেনার এক নেতা আরও এক কাঠি সরেস। ভারতে ভিন্ন ধর্মাবলম্বীদের নিরাপত্তা ও সহিষ্ণুতা বিষয়ে অভিযোগ করবে যে-ব্যক্তি, তাকে হত্যা করে হবে, হোক সে শাহরুখ, সালমান বা আমির খান।

৭. উত্তরাখণ্ডের (আগের নাম উত্তরাঞ্চল) মুখ্যমন্ত্রী বলেছে, যে গরু হত্যা করে, সে ভারতের শত্রু ও তার অধিকার নেই ভারতে বাস করার।

৮. নরবলি। নয় বছরের বালককে তান্ত্রিকরা হত্যা করেছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

৯. নোবেল পুরস্কার কৃষ্ণাঙ্গদের দেয়া হয় না! আর তাই গায়ের রং কালো বলেই নোবেল পুরস্কার থেকে বঞ্চিত হয়েছে বলে দাবি করেছে বাবা রামদেব।

১০. "স্যার বলেছে, আমি দলিত সম্প্রদায়ের, তাই পুজোয় অংশ নিতে পারবো না", বলেছে এক দলিত স্কুলবালিকা।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন