৩ নভেম্বর, ২০১৫

মুছলিম-ধর্ষক প্রতিরোধক

ইউরোপের সভ্য দেশগুলোয় একটি ব্যাপারে মুছলিমদের খুব খ্যাতি আছে। ধর্ষণে। সে দেশগুলোয় যতো ধর্ষণ সংঘটিত হয়, তার সিংহভাগের সঙ্গে জড়িত থাকে মুছলিমরা, যদিও তারা সেখানে বিপুল সংখ্যালঘু। তবে সেটাই তো স্বাভাবিক। বোরখা-হিজাবধারী জেনানারাও যাদের ‌ঈমানদণ্ড নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ, তাদেরকে 'খোসা-ছাড়ানো কলা', 'অরক্ষিত মাংস' ও 'খোলা মিষ্টি' নিরন্তর প্রলুব্ধ করলে সেটা তাদের দোষ? আর তাছাড়া ইহুদি-নাছারা মেয়েদের তারা গনিমতের মাল বা 'দক্ষিণ হস্তের অধিকারভুক্ত' বলেও গণ্য করে হয়তো। কে জানে! 

তো কাফেরনারীধর্ষণপটু মুছলিমদের হাত থেকে রক্ষা পেতে নিচের কোনও একটি পদ্ধতির প্রয়োগ কার্যকরী হতে পারে।

সর্বমোট চারটি পোস্টার, একটি ছবি।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন