২০ নভেম্বর, ২০১৫

ডাস্টবিন থেকে কুড়আনো চিন্তা - ১৪

লিখেছেন ধর্মব্যবসায়ী

৫১.
আদালতে এক মমিন বলিল:
- আমি মসজিদের টাকা চুরি করি নাই, আল্লা সাক্ষী।
জজ সাহেব উত্তর দিলেন:
- আল্লা ছাড়া অন্য কোন সাক্ষী আছে? আল্লা সাক্ষী হিসেবে নির্ভরযোগ্য নন।

৫২.
দ্বীনের নবী বলেছেন, প্রথম কাতারে দাঁড়িয়ে নামাজ আদায় করার ফায়দা অনেক। তিনি ছিলেন দূরদর্শী ও বিচক্ষণ। আমি তাঁর পরামর্শ মাফিক সর্বদাই সবার আগে মসজিদে যাই, একেবারে প্রথম কাতারে দাঁড়াই। কারণ এতে আমাকে নিচু হয়ে অন্য কারো পোঁদসুবাস নিতে হয় না।

৫৩.
কাউকে গালি দিবেন না, অভিসম্পাত দিন। অ্যালাফাক অভিসম্পাত দিতে ভালোবাসেন।

৫৪.
সেই ছাত্র সময়ের কাহিনী বলি একটা।
বাড়িওয়ালা পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন - ব্যাচেলর ভাড়া দেয়া হবে না। আমি জানতে চাইলাম:
- আপনি ব্যাচেলর পছন্দ করেন না, আপনি কি মুসলিম?
বাড়িওয়ালা:
- হ্যাঁ, মুসলিম।
গলার স্বরটা নরম করে বললাম:
- আল্লা নিজেই কিন্তু ব্যাচেলর, ব্যাচেলরদের অপমান করা মানে আল্লাকেও অপমান করা।

৫৫.
সবথেকে বড় ভিক্ষুক হচ্ছে আল্লা। বিকলাঙ্গ মিসকিনের কাছেও সে হাত পাততে বাদ রাখেনি।
আল্লার একটি নাম হওয়া উচিত: আল-ফকিরু।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন