২৬ এপ্রিল, ২০১৭

ইছলামী ইতরামি

➤ একটুর জন্যে নিশ্চিত জান্নাতবাস মিস করলো এক ফাকিস্তানী মোমিনা, মেডিক্যালের ছাত্রী। যার কিনা মানুষের জান বাঁচানোই লক্ষ্য হবারে কথা, সে খ্রিষ্টানদের ইস্টার উৎসবে আত্মঘাতী হামলা চালানোর পরিকল্পনা করেছিল।

➤ ইছলাম নারীকে আর কতো সম্মান দেবে! ১৯ বছরের মেয়েকে তার পরিবারের সদস্যরা হত্যা করেছে সে কুমারী ছিলো না বলে, ১৮ বছরের মেয়ে ও তার মাকে হত্যা করা হয়েছে মেয়েটি অ্যাবোরশন করিয়েছে সন্দেহে, ১৭ বছরের মেয়েকে হত্যা করে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে সে জোর-করে-দেয়া বিয়ে থেকে পালানোর চেষ্টা করেছিল বলে। মাত্র তিন সপ্তাহে এ ঘটনাগুলো ঘটেছে আফগানিস্তানের একটি প্রদেশে।

➤ ধর্মের প্রকৃত শিক্ষা। ১৩ বছর আগে যখন সে ইছলাম অবমাননা করেছিল, তখন এই তিন বোন ছিলো খুব ছোট। তবে তারা ভোলেনি, বড়ো হয়ে প্রতিশোধ নিয়েছে তাকে খুন করে। এবং এ নিয়ে তাদের বিন্দুমাত্র অনুশোচনা নেই

➤ ব্রিটেনে শিশুদের ওপর যৌননির্যাতনের যতো ঘটনা ঘটে, তার ৯০ শতাংশেরও বেশির সঙ্গে মুছলিমরা জড়িত। অর্থাৎ সেদেশে শিশুকামীদের সবচেয়ে সংগঠিত ও সংঘবদ্ধ দলটি শিশুকামীর উম্মতদেরই। তারা বিচারের সময় আদালতে "আল্লাহু আকবর" বলে চিৎকারও করে। নিশ্চয়ই আল্লাহ শিশুকাম অনুমোদন করেন!

➤ ইছলামী রীতি: রোজা রাখবে মুছলিমরা, তবে অমুছলিমদের বাইরে খাওয়া নিষিদ্ধ; একইভাবে মুছলিমপ্রধান মালয়েশিয়ায় মাগরিবের সময় দোকান বন্ধ রাখার সরকারী নির্দেশ অমুছলিমদের জন্যও প্রযোজ্য


➤ শিশুকামী নবীর অনেক উম্মত দাবি করে, মেয়ের বয়স ৯ হলেই সে দৈহিক মিলনের উপযুক্ত হয়ে যায় বলে । তাই বলে ১১ বছরের শিশুকন্যার সঙ্গে ছহবত করেছে (নাহয় একটু জোর খাটিয়েছে) বলেই তাকে গ্রেপ্তার করতে হবে? এদিকে আরেক মাদ্রাসা-শিক্ষক ৮ বছরের এক ছাত্রীকে যৌনহয়রানি করেছে। 

➤ স্রেফ ইহুদি হবার কারণে এক স্কুলবালককে পিটিয়েছে এবং অস্ত্রের রেপ্লিকা দেখিয়ে হুমকি দিয়েছে মুছলিম স্কুলবালকেরা। সে স্কুল ত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছে।

➤ অস্ট্রেলীয় মোল্লা বলেছে, মুছলিম মেয়েদের অ-মুছলিম বয়ফ্রেন্ড ও তারা ভুরু প্লাক করলে তাদার জাহাননামবাস নিশ্চিত।

➤ হাতে চাপাতি, মুখে "আল্লাহু আকবর" - এই না হলে সাচ্চা মুছলিম! এমন এক মুছলিম ডাচ পুলিশের গুলি খেয়ে কতোবার যে চিৎকার করে আল্যাকে ডাকলো! স-ভিডিও সংবাদ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন